পাতা:শিখ-ইতিহাস.djvu/৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


W কল্পনা রণজিৎ সিং কখনও পরিত্যাগ করেন নাই, ১৮৩৬ –ইংরাজদিগের বাণিজ্য সংক্রাস্ত এবং রাজনৈতিক নীতি, রণজিৎ সিং এবং সিন্ধিয়ান দিগের মধ্যস্থতা অবলম্বনে ইংরাজদিগের দৃঢ় সংকল্প, রণজিৎ সিংহের ক্ষমতা সীমাবদ্ধ করিতে ইংরাজদিগের অভিপ্রায় প্রকাশ, সিন্ধিয়ানগণ অধৈর্য হইয়া উঠিল ; রণজিৎ সিংহের বিরুদ্ধে সিন্ধিয়ানদিগের অস্ত্ৰধারণের উদ্যোগ, রণজিৎ সিংহও তাহাদিগের সহিত যুদ্ধ করিতে সমভাবে প্রস্তুত হইলেন ;–কিন্তু ইংরাজ প্রতিনিধির প্রার্থনায় রণজিৎ সিংহের বশু্যতা স্বীকার, তথাপি কোন ভাবী উদ্ধেশ্বে রণজিৎ সিং রোজানের অধিকার পরিত্যাগ করিলেন না, পূর্বস্মতি ; ইংরাজ এবং বারুকজায়িগণ, ১৮২৯ – শিখদিগের আক্রমণের হস্ত হইতে উদ্ধার পাইবার জন্য স্বলতান মহম্মদ খী কর্তৃক ইংরাজদিগের বন্ধুত্ব এবং সাহায্য প্রার্থনা, ১৮৩২ –দোস্ত মহম্মদ কর্তৃক সুলতান খার পদাঙ্ক অনুসরণ, সা স্বজার ভয়ে ভীত হইয়া, “বারুকজায়া” সম্প্রদায় কর্তৃক পুনরায় ইংরাজদিগের সহিত সন্ধির প্রস্তাব, জব্বর র্থ কর্তৃক পুত্রকে লুধিয়ানায় প্রেরণ, ১৮৩৪ —ইংরাজদিগের নিকট দোস্ত মহম্মদের অধীনতা স্বীকার ; সা স্বজাকে পরাজিত করিয়া দোস্ত মহম্মদ কর্তৃক ইংরাজদিগের সন্দেহ অপনোদন ; দোস্ত মহম্মদের প্রতি ইংরাজদিগের বিশ্বাস স্থাপন, পেশোয়ার অধিকারের জন্য দোস্ত মহম্মদের চেষ্টা, ইংরাজগণ সে কার্যে যোগদান করিতে অস্বীকৃত হন, ১৮৩৫ —পেশোয়ারে রণজিৎ সিং এবং দোস্ত মহম্মদ উভয়ই যুদ্ধার্থ স্থসজ্জিত হইয়া দণ্ডায়মান, যুদ্ধ না করিয়া দোস্ত মহম্মদের প্রত্যাবর্তন, ১৮৩৬ –পারগু সম্রাটের নিকট দোস্ত মহম্মদের সাহায্য প্রার্থনা ; কিন্তু ইংরাজদিগের সহিত মিত্রতা বন্ধন এবং তাহাদিগের সাহায্য প্রাপ্তি দোস্ত মহম্মদ কর্তৃক শ্রেষ্ঠ জ্ঞান করণ, কান্দাহারের শাসনকর্তগণ কর্তৃক ইংরাজদিগের নিকট সাহায্য প্রাপ্তির অভিপ্রায় ব্যক্ত করণ, রণজিৎ সিং কর্তৃক আমীরকে অন্তরঞ্জনের চেষ্টা, ১৮৩৭ ৷ —আমীর যুদ্ধ করাই শ্রেয় বলিয়া মনে করেন, ১৮৩৭ —জামরুদের যুদ্ধ, –এই যুদ্ধে শিখদিগের পরাজয় এবং হরি সিংহের মৃত্যু হয় ; কিন্তু আফগানগণ প্রত্যাগমন করে, পেশোয়ার পুনরুদ্ধার কল্পে রণজিৎ সিংহের চেষ্টা, দোস্ত মহম্মদ এছু সা স্বজার সহিত রণজিৎ সিংহের সন্ধি, শিখ এবং আফগানদিগের মধ্যস্থত অবলম্বনে ইংরাজদিগের সংকল্প, প্রধানতঃ রুষিয়ার ভয়ে ভীত বলিয়া, তাহাঁদের এইরূপ প্রবৃত্তি, জেনারেল আলার্ডের কার্যকলাপে ইংরাজ দিগের অসন্তোষ বৃদ্ধি, নাও নিহাল সিংহের বিবাহ, সার হেনরি ফেণের লাহোর আগমন,