পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/২০৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অন্ত খণ্ড । হেন কালে একজন জিজ্ঞাসে তথায় । তারক কাহার নাম আছে কি হেথায় । করিতে কবির দল বায়ন কারণ। বহু পথ পরিশ্রমে করেছি ভ্রমণ ॥ গোবর কাছারী হ’তে অামি আপিয়াছি । জয়পুর গিয়া এই সংবাদ শুনেছি। বিবাহের সম্বন্ধ করিতে তিনজন । এই গ্রামে তারা নাকি ক’রেছে গমন ॥ ভাঙ্গুড় গ্রামের কথা শুনিলাম তথা । এই যায় এই যায় শুনিলাম কথা ॥ অনেকের ঠাই শুনি জিজ্ঞাসা করিলে ! এই যায় এই গেল অনেকেই বলে ॥ আহারাদি করিলাম মনোখালি গ্রাম। এই মাত্র তথাহীতে আমি আসিলাম ॥ --যাওয়া মাত্র বায়নার টাকা ল’য়ে হাতে। সেই লোক বিদায় করিল ত্বরাম্বিতে ॥ সেই টাক। ভাঙ্গাইয়া বাতাস কিনিয়া। চলিলেন চরিজন একত্র হইয়া ॥ শ্যামচাদ কাড়ারের বাড়ী উতরিল। মেয়েট দেখিব বলে আলোচনা হ’ল ৷ মেয়েটি লইয়া শ্যাম আসিল বাহিরে। মেয়েকে বলিল দণ্ডবৎ করিবারে ॥ মৃত্যুঞ্জয় চরণে করিল প্ৰণিপাত। . পদধূলী নিল শ্ৰীচরণে দিয়া হাত ॥ মৃত্যুঞ্জয় বলে মা মাথার বস্ত্র ফেল। শুনিয়া মাথার বস্ত্র অমনি ফেলিল ॥ মৃত্যুঞ্জয় বলে মাত মেল ছনয়ন । অমনি নয়ন করিলেন উন্মিলন। মৃত্যুঞ্জয় বলে মাতা চুল ছেড়ে দেও। চুলের বন্ধন ছাড়ি ঘরে চলে যাও । অমনি দাড়ায়ে চুল বন্ধন ছাড়িল। দওঁবৎ করি পরে গৃহে চলে গেল । সীতা যেন গবাক্ষে দেখিল রামরূপ। তারকে নিরখি সতী হইল তদ্রুপ ॥ অমনি সম্বন্ধ ঠিক করিল ত্বরায়। সেই দিন রহিলেন শুiামের আলয় ॥ জিজ্ঞাসিল মৃত্যুঞ্জয় কি লইবা পণ । শুাম বলে লইবন। এই মোর পণ ॥/ গয়া ধামে যা’ব আমি ভেবেছিকু মনে । এ ছেলেকে কষ্ট। যদি দিতে পারি দানে ॥ సిగి মেয়ে দিব এই মম আকাঙ্খা কেবল । ঘরে ব'সে পাই তবে গয়। গঙ্গ। ফল ॥ যে হইতে মাত জন্মে আমার ভবনে। সেই হ’তে এই আশী সদা মোর মনে , ঈশ্বর মনের আশা করুণ পুরণ । বিনাপণে কন্যাধনে করিখ অৰ্পন ॥ " সম্বন্ধ নির্ণয় করি প্রভুকে বলিল । প্রভু বলে যার তার যুগে যুগে র’ল ! প্রভু বলে শুমি যদি নাহি লয় পণ। তথাপি বত্রিশ টাকা করিও প্রেরণ ॥ তারক ভেবেছে মনে উপায় কি হবে। গৃহে নাস্তি কপর্দক কিবা পাঠাইবে ॥ মহাপ্রভু ব’লে বসে কি ভাবিস এক। বৈশাখ মাসেতে বিয়া আমি দিব টাকা । - মাঘ মাসে হ’ল সেই কাৰ্য্য নিরূপণ। চারি মাসে হ’ল সে টাকার সংস্থাপন ॥ তিন তারিখেতে তিন ভাগে টাকা দিল । পণ নয় সাহায্য বলিয়া পাঠাইল ॥ বৈশাখ মাসের শেষ আটাশে তারিখ । বিবাহের সেই দিন হয়ে গেল ঠিক । বিবাহের দিন একদিন অগ্রে তার। বায়ন কুন্দগী গ্রামে কবি গাওনার ॥ সেই দিন গ্রামী লোকে ফলাহার দিতে । একমন দধির বায়না ছিল তাতে ॥ এ দিকেতে স্বজাতির একত্রে ভোজন । বাজারের নেয়ে মাঝি খা’বে সৰ্ব্বজন ॥ বসিলেন সৰ্ব্বজন ফলাহার জন্য । পঞ্চাশ পঞ্চান্ন জন লোক হ’ল গণ্য। জলপানে পরিপূর্ণ আহার হইল। সিকি দধি মাত্র তার খরচে লাগিল ॥ সেই দই চিনি খই সঙ্গেতে করিয়া । বরযাত্রা করিলেন নৌকায় উঠিয়া। পথে গিয়া সেই দধি সবে মিলে খায়। চিনি চিড়ে দই খই যেন তেন রয় ॥ ভাঙ্গুড়া গ্রামেতে গিয়া বাসাবাড়ী করি। সেই সব দ্রব্য খাওয়াইল সেই বাড়ী ৷ এজাতির বিবাহ পদ্ধতি ব্যবহার। কন্যা কৰ্ত্ত বাড়ী কেহ নাপায় আহার ॥ কন্যা গৃহীতার তথা খেতে দিতে হয়। ঘে, নাপারে, না খাওয়ায়, পারিলে খাওয়ায় ॥