পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্রোল-তানি হয়েছে যে, আমি তোমাদের বাড়ী যেতে পারব না । সে আদেশ আমাকে মেনে চলতেই হলে ; কারণ তুমিই ত ছেলেবেলায় মুখস্থ করিয়ে দিয়েছ, পিতরি প্রীতিমাপন্নে প্রীয়ন্তে সৰ্ব্ব দেবতা: | সুতরাং, এখন আমি নিৰ্ব্বাসিত ! দেখ, সেদিন তোমার কথা শুনে আমি বেশ বুঝতে পেরেছিলাম যে, আমি তোমার পক্ষে কাৰ্য্য করার অস্তুরায় । তুমি আমার মূখ চেয়ে যে সৰ্ব্বপ্রকার অনিষ্ট নীরবে সহ করবে, এই কথা বলে গিয়েছ। তোমার মত দাদার উপযুক্ত কথাই হয়েছিল বটে, কিন্তু নয়-আনির জমিদারের মত কথা ষ্টয় নাই । শুনেছি, সেকালে নাকি কথায়-কথায় দুই বাড়ীর কৰ্ত্তা-গিন্নীরা হুকুম দিতেন দশ হাজার টাকা বকশিস লে আ ও মমুক বাবুর মাথা !" এখনও সেই বনিয়াদী নিয়মটা চালা ও না ; ঐ রকম হুকুমই দেবীপুরের বাবুদের মুখে শোভা পায় ; তা নয়, ক্ষমা করব, নীরবে সহ্য করব, এ সব তৃণাদপি-মুনীচেন বাক্য তোমাদের মুখে ভাল শোনায় না । তোমরা বলবে চণ্ডীর মত ‘তিষ্ঠ তিষ্ঠ ক্ষণং মূঢ়ং বা ঐ রকম কিছু। দেখ, এ সব সরিকান ব্যাপারে তুমি ভুলে যেও যে, হরিহর নামে তোমার একটা ভাই আছে । সত্যি দাদা, সেদিন তোমার রাগ ও ক্ষম দুইটাতেই আমি অবাকৃ হয়ে গিয়েছিলাম। আমার জন্ত যদি সব নীরবেই সহ্য করবে বলে জান, তবে আবার সেদিন কেন স-রব হ’লে ? তোমাকে একটা ভারি মজার সংবাদ দিচ্ছি । এটা আমার কিন্তু শোনা কথা, আমি নিজে সে ক্ষেত্রে উপস্থিত ছিলাম না । ১২১