পাতা:ষোল আনি (জলধর সেন).djvu/১৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোল তমালি জন্য আমার কালাশোঁচেই বা তোমার কি বধিল, আমার বিষয়ের মালিক না হওয়া পৰ্য্যন্তই বা কি আটকে গেল। তোমার কৰ্ত্তব্য তুমি করবে, তার মধ্যে আমাকে জড়াও কেন ?” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “তোকে জড়াবার জন্তই এখন চুপ করে থাকতে চাই, সময়ের অপেক্ষা করতে চাই।” রমাসুন্দরী বলিলেন “ন, যা তোমার মনের কথা, আমাকে খুলেই বল না ; সেই হিসাবে এখন থেকেই সব ঠিক করা যাক । আমি, সিধু, তোমাকে কোন অনুরোধ করব না, কারণ তোমার উপর আমি সম্পূর্ণ নির্ভর করতে পারি। তুমি নিঃসঙ্কোচে তোমার মনের কথা বুলতে পার।” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “তা হ’লে মা, এখনই শুনবে ? বেশ, তা হোলে শোনে। আমি যে আবার বিবাহ করে সংসার-ধৰ্ম্ম করব, সে ইচ্ছ। আমার নাই। সে বিষয়ে আমি দৃঢ়সঙ্কল্প।” এই পর্য্যন্ত বলিয়াই সিদ্ধেশ্বর নীরব হইলেন । হরিহর বলিল “তার পর কি, তাই বল ? চুপ করলে কেন ?” সিদ্ধেশ্বর বলিলেন “তার পরের কথা বলবার আগে মায়ের অনুমতি চাই হরিহর । আর তোমার কাছেও একটা কথা চাই।” হরিহর বলিল “জ্যেঠাইমা ত তোমার উপরই সব ভার দিয়েছেন ; তুমি যা করবে তাতেই ওর সন্মতি আছে।” “তবুও মা, তোমাকে বলতে হচ্ছে, আমি তোমার কাছে যা ভিক্ষ চাইব, তাই তুমি আমাকে দেবে।” রমামুন্দরী বলিলেন “তুই আজ এ কি নূতন কথা বলছিস্ । )8や