পাতা:১৯০৫ সালে বাংলা.pdf/৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ex ) বিপিনচন্দ্র পাল, পণ্ডিত গীপতি কাব্যতীর্থ, ডাক্তার আবদুল গফুর প্রভৃতি অনেকে স্বদেশী দ্রব্য ব্যবহার সম্বন্ধে বক্তৃতা করেন। স্বদেশ-সেবক সম্প্রদায় এই সভাতেও জাতীয় সঙ্গীত গান করিয়াছিল । মুসলমান সমাজের সম্মান প্রকাশ । ৪ঠা ফান্ধন শুক্রবার লাঞ্ছিত স্বদেশভক্তদিগের অভ্যর্থনা করিবার জন্য মুসলমান সমাজের কয়েকজন নেতা এলবার্ট হলে একটী সভার অধিবেশন করিয়াছিলেন। ঐ দিন আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হইয়াছিল এবং ক্রমাগত বৃষ্টিপাত হইতেছিল। এরূপ দুৰ্য্যোগ সত্ত্বেও সভার কার্য্য নিৰ্ব্বেঘ্নে স্বসম্পন্ন হইয়াছিল ; সভায় অমুষ্ঠানকারীরা লাঞ্ছিতদিগের প্রতি যথোচিত অাদর ও সম্মান প্রকাশ করিয়াছিলেন এবং আতর পুষ্পমাল্য ও পুষ্পগুচ্ছ প্রদান পূৰ্ব্বক তাহাদিগের প্রতি বৰ্দ্ধন করিয়াছিলেন। মৌলবী লিয়াফৎ হোসেন, মুন্সী দেদারবক্স এবং ডাক্তার আবদুল গফুর প্রভৃতি এই স্বদেশ-সেবকদিগকে প্রতিপূর্ণ-হৃদয়ে আলিঙ্গন করেন। দুৰ্য্যোগ বশতঃ সেদিন লাঞ্ছিতদিগের সকলে সভাস্থলে উপস্থিত হইতে পারেন নাই। লাস্থিতদিগের মধ্যে বাবু ধীরেন্দ্রনাথ সিংহ, বাৰু স্বরেন্দ্রনাথ সিংহ, বাবু ভূতনাথ ভট্টাচাৰ্য্য ও বাবু নগেন্দ্রনাথ গুহ রায় এই কয়েক ব্যক্তি সভায় উপস্থিত হইয়াছিলেন। সিটি কলেজের সঙ্গীত শিক্ষক বাৰু হেমচন্দ্র সেন দ্বারা কুক্তি পয় জাতীয় সঙ্গীত গীত হইবার পর সভার কার্য্য আরব্ধ হয় ।