পাতা:জয়তু নেতাজী.djvu/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* 。 জয়তু নেতাজী ঘোষণাৰ মন্ত্র । জাতির আত্মবক্ষা ও আত্মপ্রতিষ্ঠাব জন্ত পাশ্চাত্যের নিকট হইতে বঙ্কিমচন্দ্র যজ্ঞের যে সমিধ সংগ্ৰহ করিয়াছিলেন, এবং ভারতীয় ভাবে শোধন করিযা তাহাতে যে অগ্ন্যাধান করিয়াছিলেন, সেই অগ্নিভেষ্ট স্বামী বিবেকানন্দ নব পুরুষ-যজ্ঞের মন্ত্র উচ্চারণপুনর্বক আহুতি প্রদান কবিলেন । ভারতের সেই প্রাচীন মুক্তি-সাধনাকেই, তিনি ঋষির অরণ্য, যোগীর গুহা, ভক্তেৰ আশ্রম হইতে উদ্ধার কবিয়া, জাতি ও সমাজের জীবন-সমস্তার সঠিভ যুক্ত কবিয দিলেন । আহুতিশেষে সেপ যজ্ঞাগ্নি হইতে যে পুরুষেব আবির্ভাব হইল, সেন্স বাণীই যে-মূৰ্ত্তি ধারণ কfrল, তাহার লৌকিক নাম—নলাঙ্গী সুভাষচন্দ্র । তখন ও যজ্ঞশালাব বা পথে সেত মন্ত্র কেহ কর্ণগোচর করে নাই, সেই পুরুষও কাহার ৭ দৃষ্টিগোচৰ হয় নষ্ট—অদুব ভবিষ্যৎ তখনও বর্তমান হইয় উঠে নাই । সৰ্ব্বব্যাধি-সৰ্ব্বতুঃখ-মোচনের একমস্থ যে ঐ স্বাধীনতা, আর কিছুম্বারা যে তাত সম্ভব নয- ঐ এক বস্তু লাভ করিতে পারিলে আর সকলই লাভ হইবে, না পাবিলে কিছুষ্ট হইবে না—ইহা ভারতবর্ষে আর কেহ এমন কবিয়া অমু ভব করে নাই , এই মন্ত্রেণ আদি-ঋষি বা দ্রষ্টা যে বাঙালী, গত পঞ্চাশ বৎসরের বাংলাব, স্তথা ভারতের ইতিহাস তাহার সাক্ষ্য দিবে । শুষ্ঠার কারণ কি ? কারণ পূৰ্ব্বে বলিয়াছি ; ইংরেজ-সংসর্গের বিষ ও অমৃত জুই-ই সে যে পরিমাণে পান করিয়াছে, এমন আর কেহ করে নাই শেৰে অমৃতের পরিবর্ভে বিষই তাকার আত্মাকে জর্জরিত করিল