পাতা:ব্যঙ্গকৌতুক - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বগীয় প্রহসন اواC(، করিবার কোনো উপায় নাই ; অতএব সংখ্যা বৃদ্ধি করিবার পূৰ্ব্বে সবিশেষ বিবেচনা করিয়া দেখা কৰ্ত্তব্য । ইন্দ্র। হে স্বরগুরো, স্বর্গের পথ দুর্গম করিবার জন্ত স্বৰ্গাধিপতির চেষ্টার ক্রটি নাই ত্ৰ কথাসৰ্ব্বজনবিদিত। বৃহস্পতি । পাকশাসন নাকপতে, তবে কেন অধুনা দেবলোকে মনসা শীতলা ঘেটু নামধারী অজ্ঞাতকুলশীল নব নব দেবতার অভিষেক হইতেছে ? حبیہ ইন্দ্র দ্বিজোত্তম, আমরা দেবতাগণ ত্রিভুবনের কর্তৃত্বভার প্রাপ্ত হইয়াছি বটে কিন্তু সে কেবল ত্রিভুবনের সম্মতিক্রমে। এ কথা গুরুদেবের অগোচর নাই, যে, মৰ্ত্ত্যলোকেই দেবতাদের নির্বাচন হইয়া থাকে । \ এককালে অায্যাবৰ্ত্তের সমস্ত ব্রাহ্মণ হোতাগণ আমাকেই স্বর্গের প্রধান পদ দিয়াছিলেন এবং তৎকালে সরস্বতী দৃযদ্বতী তীরের প্রত্যেক যজ্ঞ হুতাশনে আমার উদ্দেশে অহরহ যে হবি সমৰ্পিত হইত তাহার হোমধুমে আমার সহস্ৰলোচন হইতে নিরস্তর অশ্র প্রবাহিত হইত। অদ্য নরলোকে হবি ঘৃত কেবল মাত্র জঠরযজ্ঞে ক্ষুধামুরের উদেশেই উপহৃত হইয়া থাকে এবং শুনিতে পাই সে স্কৃতও বিশুদ্ধ নহে। বৃহস্পতি । বৃত্ৰনিস্থদন, সেই অপবিত্র বিমিশ্র ঘৃতপানে, শুনিতে পাই, ক্ষুধাস্থর মৃতপ্রায় হইয়া আসিয়াছে । হে শক্র, দেবতাদের প্রতি দেবদেবের বিশেষ কৃপ আছে সেই জন্যই নরলোকে হোমাগ্নি নিৰ্ব্বাপিত হইয়াছে, নতুবা নব্য গব্য পরিপাক করিতে হইলে, ভো পাকশাসন, দেবজঠরের সমস্ত অমৃতরস সুতীব্র অস্ত্ররসে পরিণত হইত, অগ্নিদেবের মন্দাগ্নি এবং বায়ুদেবের বায়ুপরিবর্তন আবশ্বক হইত, এবং সমস্ত দেবতার অমরবক্ষে অসহ শূল বেদন অমর হইয়া বাস করিত। ইন্দ্র । হে জ্ঞানিশ্রেষ্ঠ, উক্তস্কৃতের গুণাগুণ আমার অবিদিত নাই, যেহেতু যমরাজের নিকট সৰ্ব্বদাই তাহার বিবরণ শুনিতে পাই। অতএব