ঝাঁশির রাণী

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
ঝাঁশির রাণী

ঝাঁশির রাণী৷

ঝাঁশির রাণী - জ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুর (page 1 crop).jpg

'
শ্রীজ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুর

ঝাঁশির রাণী ।

শ্রীজ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুর কর্ত্তৃক

সঙ্কলিত।

কলিকাতা,
২৫ নং রায়বাগান ষ্ট্রীট, ভারত-মিহির যন্ত্রে,
সান্যাল এণ্ড কোম্পানি দ্বারা
মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
১৩১০ সাল।

ভূমিকা।

 এত দিনের পর, প্রখ্যাত বীরাঙ্গনা মহারাণী লক্ষ্মীবাইর একটী প্রামণিক ও আনুপূর্ব্বিক জীবন-বৃত্তান্ত[১] প্রকাশিত হওয়ায়, আমাদের একটী জাতীয় অভাব মোচন হইল। গ্রন্থটী মহারাষ্ট্রীয় ভাষায় লিখিত। গ্রন্থকার মহারাণীর জীবনবৃত্তান্ত-সম্বন্ধে, ইংরাজী গ্রন্থ, দেশীয় গ্রন্থ, সরকারী কাগজপত্রাদি যেখানে যা কিছু জ্ঞাতব্য বার্ত্তা পাইয়াছেন তৎসমুদয় তন্নতন্নরূপে বিচার করিয়া, স্থানীয় কিম্বদন্তী হইতে, ও যুদ্ধক্ষেত্রে উপস্থিত রাণীর অনুচরবর্গ ও আত্মীয় স্বজনের কথিত বিবরণ হইতে, সমস্ত তথ্য স্বাধীনভাবে সংগ্রহ করিয়া এবং ঘটনাস্থলগুলি স্বয়ং পরিদর্শন করিয়া, অতীব নিরপেক্ষভাবে ও প্রভূত শ্রমসহকারে এই গ্রন্থখানি প্রণয়ন করিয়াছেন। বিশেষতঃ রাণীর সপত্নী-মাতা চিমাবাই ও রাণীর দত্তকপুত্র দামোদর-রাও―ইঁহাদের নিকট হইতে গ্রন্থকার যে বৃত্তান্ত সংগ্রহ করিয়াছেন, তাহাতে এই ইতিহাসের প্রমাণ-বল আরও দৃঢ়ীভূত ও ইহার মূল্য অনেক পরিমাণে বর্দ্ধিত হইয়াছে। আমি এই গ্রন্থ হইতে সঙ্কলন করিয়া রাণীর জীবনের মূল ঘটনাগুলির সংক্ষিপ্ত বিবরণ পাঠকবৃন্দের নিকট সাদরে অর্পণ করিলাম।

শ্রীজ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুর।
  1. “ঝাঁশী সংস্থান মহারাণী লক্ষ্মীবাই সাহেব হ্যাঁচে চরিত্র”—দত্তাত্রয় বলবন্ত পারস-নীস প্রণীত।

এই লেখাটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাবলিক ডোমেইনে অন্তর্গত কারণ এটি ১৯২৬ খ্রিষ্টাব্দের ১লা জানুয়ারির পূর্বে প্রকাশিত।


লেখক সালে মারা গেছেন, তাই এই লেখাটি সেই সমস্ত দেশে পাবলিক ডোমেইনে অন্তর্গত যেখানে কপিরাইট লেখকের মৃত্যুর ৮০ বছর পর্যন্ত বলবৎ থাকে। এই রচনাটি সেই সমস্ত দেশেও পাবলিক ডোমেইনে অন্তর্গত হতে পারে যেখানে নিজ দেশে প্রকাশনার ক্ষেত্রে প্রলম্বিত কপিরাইট থাকলেও বিদেশী রচনার জন্য স্বল্প সময়ের নিয়ম প্রযোজ্য হয়।